ফ্লিপকার্ট(Flipkart ) থেকে টাকা আয় করার উপায়?

আপনি কি জানতে ফ্লিপকার্ট(Flipkart ) থেকে  কিভাবে টাকা আয় করা যায়? যদি হ্যাঁ,  তাহলে আজকের এই পোস্টটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ফ্লিপকার্ট থেকে আয় করার দুটি সেরা উপায় সম্পর্কে আজ বলতে যাচ্ছি। প্রথমটি,  ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম থেকে আয় । দ্বিতীয়টি, ফ্লিপকার্ট Seller হয়ে আয়।

ফ্লিপকার্ট(Flipkart ) থেকে টাকা আয় করার উপায়?

ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম থেকে আয়ঃ

আপনি যদি একটি পয়সাও বিনিয়োগ না করে  বাড়িতে বসে ভাল টাকা আয় করতে চান, তবে এই পদ্ধতিটি ফ্লিপকার্টের সাহায্যে টাকা আয় করার খুব ভাল উপায় হতে পারে। ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং প্রোগ্রামের মাধ্যমে টাকা আয় করার জন্য একটি পয়সাও বিনিয়োগ করতে হবে না, অথবা এর জন্য আপনাকে কোথাও যাওয়ার প্রয়োজন নেই। আপনি বাড়িতে বসে ইন্টারনেটের মাধ্যমে অনলাইনে টাকা আয় করতে পারেন। এই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কী এবং এটা সাহায্যে কীভাবে টাকা আয় করতে পারেন সে সম্পর্কে কথা বলা যাক।

ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম কী?

এটি  এমন একটি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং প্রোগ্রাম যেখানে আপনাকে যুক্ত হয় তাদের পণ্যগুলি(Products) প্রচার করতে হবে এবং বিনিময়ে আপনি একটা কমিশন অর্জন করতে পারেন। অর্থাৎ এই প্রোগ্রামে কোন অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে না বা পণ্য কিনতে হবে না অথবা পণ্য রাখার জন্য আপনার একটি জায়গা প্রয়োজন হবে না।  আপনাকে কেবল সেই পণ্যগুলি প্রচার করতে হবে । কোন ব্যক্তি যদি আপনার প্রচার করার করা লিঙ্কের উপর ক্লিক প্রোডাক্টটি কিনে ফেলে তাহলে আপনি একটা নির্দিষ্ট কমিশন পাবেন।

ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট থেকে কত কমিশন অর্জন করা যেতে পারে?

আপনার মাথায় এই প্রশ্নটি অবশ্যই আসতে পারে যে ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট থেকে কত টাকা ইনকাম করা যেতে পারে? তো বন্ধুরা, আপনি যত বেশি কাজ করবেন, পণ্য বিক্রি করবেন ততো বেশি টাকা আয় করতে পারবেন। এমন অনেক লোক আছেন যারা এই কাজটি করে হাজার থেকে লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয় করেছেন। ওরা যদি আয় করতে পারে তাহলে আপনি পারবেন না কেন?

ফ্লিপকার্ট  থেকে টাকা আয় করার উপায়?

এখন প্রশ্ন হলো আপনি ফ্লিপকার্ট থেকে কিভাবে টাকা আয় করতে পারবেন? এর জন্য  আপনাকে প্রথম  যে কাজটি করতে হবে  সেটি হল-  অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এর সঙ্গে যুক্ত হওয়া। আপনি এই লিংকে ক্লিক করে ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এর সঙ্গে যুক্ত হতে পারবেন।

এই প্রোগ্রামে যোগদানের পর, আপনাকে এর পণ্যগুলি অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কের মাধ্যমে প্রচার করতে হবে। আপনি যে কোনও পণ্যের অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক  আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট বা আপনার ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে খুব সহজেই শেয়ার করে আয় করতে পারেন।

এর পরে, যখনই কেউ আপনার ফ্লিপকার্টের অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কের মাধ্যমে সেই পণ্যটি কেনে, আপনি একটি ভাল কমিশন পাবেন যেটা আপনি সরাসরি আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে নিতে পারেন।

ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম কিরকম কমিশন দেয়?

যদি ফ্লিপকার্টের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামের কমিশন রেটের কথা আসে যে এটি আপনাকে পণ্য বিক্রির জন্য কত কমিশন প্রদান করে। এটি নির্ভর করে বিভিন্ন  শ্রেণীর পণ্যের উপর। যেমন-

বই – 6% থেকে 12%
ইবুক – 6% থেকে 12%
খেলনা – 6% থেকে 20%
মোবাইল – 5% পর্যন্ত
কম্পিউটার – 6% পর্যন্ত
ক্যামেরা – 4% পর্যন্ত

ফ্লিপকার্ট অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে কীভাবে যুক্ত হতে

যদি আপনি ফ্লিপকার্টের  অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে যোগ দিতে চান,  তাহলে আপনাকে নীচের পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে হবেঃ

ধাপ 1:  আপনাকে প্রথমে ফ্লিপকার্টের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম পৃষ্ঠায় যেতে হবে। আপনি গুগলে অনুসন্ধান করতে পারেন বা এখানে দেওয়া লিঙ্ক ক্লিক করে যেতে পারেন।

ধাপ 2: আপনি এর হোম পেজে ফ্রীতে জয়েন হওয়ার অপশন খুজে পাবেন।

ধাপ 3:  আপনার জি-মেইল দিয়ে রেজিষ্টার করুন।

ধাপ 4:  আপনার ইমেলে একটি লিঙ্ক আসবে যার মাধ্যমে আপনি আপনার ইমেল ভেরিফাই করতে পারেন।

ধাপ 5: এর পরে আপনাকে  সেখানে আপনার সমস্ত তথ্য সরবরাহ করতে হবে । যেমন – আপনাকে আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে এবং ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দিতে হবে।

ফ্লীপকার্ট সেলার(Seller) হয়ে আয় করুনঃ

 

ফ্লিপকার্ট এমন একটি ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম যেখান থেকে আপনি হাজার হাজার পণ্য কিনতে পারেন, স্পষ্টতই, আপনি যদি সেখান থেকে পণ্য কিনতে পারেন তবে ফ্লিপকার্টে সেই পণ্যগুলি বিক্রি করার মতো কেউ থাকবে না। তাই   ফ্লিপকার্টের  অন্য এমন একটি প্রোগ্রাম রয়েছে যা আপনাকে আপনার পণ্য বিক্রি করতে   সহায়তা করবে।

ফ্লিপকার্টের সাহায্যে টাকা আয় করার অন্যতম সেরা উপায় হল ফ্লিপকার্টের বিক্রেতা( Seller) হওয়া।  এর মাধ্যমে ফ্লিপকার্টের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করে ভাল টাকা আয় করতে পারেন।  আপনার কাছে এমন পণ্য রয়েছে যা আপনি ফ্লিপকার্টের সাহায্যে বিক্রি করতে পারেন।

ফ্লীপকার্ট সেলার(Seller) হয়ে আয় করার জন্য এখানে ক্লিক করুন

এছাড়া দেখে নিনঃ

ইউটিউব চ্যানেলে ভিউ(View) বাড়ানোর উপায় 2021?

২০২১ ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা কামানোর উপায়?

Leave a Reply