কালোমরিচ বা গোলমরিচের উপকারিতা ও অপকারিতা

ঔষধি গুণসমৃদ্ধ কালোমরিচ বা গোলমরিচের উপকারিতা ও অপকারিতা

Posted by

ঔষধি গুণসমৃদ্ধ কালোমরিচ বা গোলমরিচের উপকারিতা ও অপকারিতা

কালোমরিচ বা গোলমরিচের উপকারিতা ও অপকারিতা

কালো মরিচ বা গোলমরিচ(Black Pepper) প্রাচীনকাল থেকে মশলা হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এটি মশলার রাজা নামে পরিচিত। গোলমরিচের ঔষধি গুণও যথেষ্ট। আজকের পোষ্ট কালোমরিচ বা গোলমরিচের ঔষধি গুণাবলী এবং এর অতিরিক্ত ব্যবহারের ব্যবহারের ফলে আমাদের শরীরে যে ক্ষতির সম্ভাবনা সম্পর্কে জানবো।

গোলমরিচ বা কালোমরিচের ঔষধি গুণাবলীঃ

  • ভিটামিন- C
  • ক্যালসিয়াম
  • ম্যাঙ্গানিজ
  • ভিটামিন- K
  • ভিটামিন- A
  • লোহা
  • তন্তু
  • পটাশিয়াম।

পাচনতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে গোলমরিচঃ

গোলমরিচে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড নামে একটি উপাদান রয়েছে যা পাচনতন্ত্রকে শক্তিশালী করে। এর নিয়মিত ব্যবহারে অ্যাসিডিটি দূর হয়ে যায়। এছাড়া নিয়মিত কালো মরিচ সেবনের ফলে  মূত্র এবং ঘাম বেড়ে যায় এবং শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের হয়।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করেঃ

কালো মরিচে পাইপারলাইন নামে একটি উপাদান থাকে। কালো মরিচে সামান্য হলুদ মিশিয়ে খেলে ক্যান্সার এড়ানো যায়। এতে ভিটামিন এ, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ক্যারোটিন রয়েছে যা ক্যান্সার নিরাময়ে সহায়তা করে।

জ্বর এবং কাশিতে উপকারীঃ

আপনার যদি জ্বর হয়, তবে দুই চা চামচ চিনি এবং আধা চা চামচ কালো মরিচ যোগ করুন এবং এটি জল দিয়ে খেয়ে নিন। এতে কাশি অনেকটা কমে যাবে। কাশি হলে দুধ বা মধুতে সামান্য গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে পান করুন। কাশি অনেকটা কমে যাবে।

পেটের আলসারে উপকারীঃ

নিয়মিত কালো মরিচ সেবন করলে পেটের আলসার এড়ানো যায়। কারণ এতে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা পেটের আলসার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

হাঁপানি প্রতিরোধঃ

গোলমরিচে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য শ্বাস এবং অ্যাজমা সম্পর্কিত সমস্যাগুলি প্রতিরোধ করে।

বাতের চিকিত্সার ক্ষেত্রে উপকারীঃ

গোলমরিচের অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা বাত নিরাময়ে সহায়তা করে। অতএব যাদের বাত আছে তাদের উচিত কালো মরিচের তেল ব্যবহার করা। কালো মরিচের তেল দিয়ে জোড়গুলি ম্যাসেজ করলেও স্বস্তি দেয়।
তেলে কালো মরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে গরম করে ম্যাসাজ করুন, এতে অনেক উপকার দেবে।

হতাশায়(Depression) উপকারী:

হতাশা বা স্ট্রেসে ভুগছেন  এমন লোকেরা সকালে এবং সন্ধ্যায় মধুতে খানিকটা গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে খেয়ে নিন। এতে মস্তিষ্ক শীতল হয়ে যায় এবং মস্তিষ্ক থেকে চাপ সরে যায়।
গোলমরিচের এতো  ঔষধি গুণ থাকা সত্বেও এর কিছু অপকারিতা আছে। এগুলি হল-
  • বেশি পরিমাণে গোলমরিচ সেবনের কারণে পেটে জ্বালা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
  • গ্রীষ্মে বেশি মরিচ খেলে রক্তক্ষরণ হতে পারে।
  • গর্ভবতী মহিলারা বেশি পরিমাণে কালো মরিচ সেবন করলে গর্ভপাত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে ।
  • বুকের দুধ খাওয়ানো মহিলাদের বেশি পরিমাণে কালো মরিচ খাওয়া উচিত নয়।

এছাড়াও পড়ুনঃ

ঔষধি গুণসমৃদ্ধ রসুনের উপকারিতা ও অপকারিতা

 

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *